Introduction to Spreadsheet

Introduction to Spreadsheet

MS Excel Lesson -1

Introduction to Spreadsheet

মাইক্রসফট এক্সেল কী (What is Microsoft Excel) ?

মাইক্রসফট এক্সেল একটি ইলেট্রনিক স্প্রেডশিট যার সাহায্যে প্রধাণত ডেটা সঞ্চয়করণ, উপস্থাপন এবং গাণিতিক ক্রিয়া  সম্পাদন করা যায় ।

ইলেক্ট্রনিক স্প্রেডসিট/স্প্রেডসিট (Spreadsheet) কী ?

স্প্রেডসিট একটি ট্যাবুলার ফর্ম যেখানে ডেটা রো এবং কলামের সাহায্যে উপস্থাপন করা হয় ।

বিভিন্ন প্রকারে স্প্রেডসিট হল- MS Excel, IBM Lotus Symphony, Kingsoft Office Spreadsheet.

ইলেক্ট্রনিক স্প্রেডসিটের সুবিধা ?

 ইলেক্ট্রনিক স্প্রেডসিটের মাধ্যমে হিসাবনিকাশের ফাইলগুলি স্থায়ীভাবে দীর্ঘদিন সং রক্ষিত করে রাখা যায় এবং প্রয়োজনে  কাগজে প্রিন্ট করা যায় ।

MS Excel-2007 কি ভাবে চালু করবে ?

Start -> All Programs -> Microsoft Office -> Microsoft Office Excel-2007  এ ক্লিক করলে Microsoft Excel উই ন্ডোটি দেখতে পাওয়া যাবে ।

MS Excel-2007 এর ফাইলকে কি ভাবে সেভ করবে ?

Office বটনে ক্লিক করে Save অপশনে ক্লিক করলে Save as ডায়লগ বস্ক খুলবে এখান থেকে Folder সিলেক্ট করে নির্দেষ্ট নাম টাইপ করে Save বটনে ক্লিক করতে হবে ।

MS Excel-2007 এর কোনো ফাইলের ডুপ্লিকেট ফাইল কি ভাবে তৈরি করবে ?

Office বটনে ক্লিক করে Save as অপশনে ক্লিক করলে Save as ডায়লগ বস্ক খুলবে এখান থেকে Folder সিলেক্ট করে নির্দেষ্ট নাম টাইপ করে Save বটনে ক্লিক করতে হবে ।

MS Excel-2007 কোন কোম্পানির তৈরি সফটওয়ার ?

এটি Microsoft কোম্পানির তৈরি সফটওয়ার

MS Excel-2007 ফাইলের Extension নেম কী?

.xlsx (2007 এর আগের ভার্সনের  .xls ছিল)

সাধারণ অবস্থায় MS Excel-2007 ফাইলের নাম কি থাকে?

Book1, Book2, Book3 ….ইত্যাদি ।

MS Excel-2007 এর কয়েকটি সংস্করণের নাম লেখ

Excel-97, Excel xp, Excel-2003, Excel-2007 ইত্যাদি ।

MS Excel-2007 বাদে অন্য কোনো Spreadsheet Software নাম লেখ ।

LOTUS 1-2-3,  Google Sheets, LibreOffice-Calc ইত্যাদি ।

উইন্ডো পরিচিতি (Introduction to MS Excel 2007 Window)

MS Excel Window টির উল্লেখযোগ্য উপাদান গুলি হল –

Introduction to Spreadsheet

MS Excel 2007 Opening Window

অফিস বাটন:

এই বাটনের দ্বারা কোনো ফাইল কে New, Open, Save, Save as, Print, Prepare, Send, Publish, Exit  এর কাজ গুলি করা যায় ।

ক্যুইক এক্সসে টুলবারঃ

এখানে সাধারণ অবস্থায় Save, Undo, Redo বাটন থাকে প্রয়োজনে অরও বাটন যুক্ত করা যায় ।

রিবনঃ

এখানে মেনুবার এবং টুলবার একসাথে যুক্ত করে সাতটি রিবন/ট্যাব রখা হয়েছে । প্রতিটি রিবনের মধ্যে একাধিক কমান্ডগ্রুপ থাকে তার মধ্যে একাধিক কমান্ড বাটন থাকে ।

টাইটেল বারঃ

এখানে ফাইলের নাম, Close, Minimize, Maximize এবং Restore Down বাটন থাকে ।

নেম বস্ক

এখানে অ্যাকটিভ সেলে অ্যাড্রেস থাকে । তাছাড়া এখানে নির্দষ্ট সেল অ্যাড্রেস টাইপ করে সরাসরি নির্দিষ্ট সেলে যাওয়া যায় ।

ফর্মূলা বার

সেলের তথ্য এখানে দেখা যায় বা সেল সিলেক্ট করে ফর্মুলা বারে তথ্য টাইপ করলে তা সেলে প্রবেশ করে ।

শিট ট্যাব

ওয়ার্কশিটের নিচে Sheet1, Sheet2 এবং Sheet3 নামে তিনটি শিট থাকে প্রয়োজনে আরও শিট যুক্ত করা যায়  ।

হরাইজনটাল বারঃ

ওয়ার্কশিটের নিচের দিকে অনুভুমিক ভাবে শিট কে ডানে বামে স্ক্রল করার জন্য হরাইজনটাল বার ব্যবহার করা হয়

ভার্টিক্যাল বারঃ

ওয়ার্কশিটের ডান দিকে উলম্বভাবে ভাবে শিট কে উপর নিচে স্ক্রল করার জন্য ভার্টিক্যাল বার ব্যবহার করা হয় ।

স্টেটাস বারঃ

এক্সেল উইন্ডোর সবথেকে নিচে অনুভুমিক যে বার দেখা যায় তাকে স্টেটাস বার বলে । এখানে সাধারণ অবস্থায় Ready এবং ডান দিকে ভিউ এবং Zoom বার দেখা যায়।

ভিউ বাটনঃ

স্টেটাস বারের ডান দিকে তিনটি ভিউ বাটন দেখা যায় ।সে গুলি হল –

  1. Normal View : সাধারণ অবস্থায় এক্সেলের ওয়ার্কশিটগুলি Normal Viewতে থাকে ।
  2. Page Layout View: এই ভিউ তে সমগ্র ওয়ার্কশিটি বিভিন্ন পাতায় বিভক্ত হয়ে প্রদর্শিত হয় ।
  3. Page Break View : এই ভিউয়ের মাধ্যমে সমগ্র ওয়ার্কশিটটি মোটা লাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন পাতায় বিভাজিত অবস্থায় দেখায় ।

কোনো ওয়ার্কবুককে কিভাবে খুলবে ?

Office Button এ ক্লিক করে Open অপশনে ক্লিক করলে Open ডায়লগ বস্ক খুলবে সেখান থেকে নির্দিষ্ট ফাইল সিলেক্ট করে Open বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

অথবা

 Ctrl+O কী দুটি একসাথে প্রেস করলে করলে Open ডায়লগ বস্ক খুলবে সেখান থেকে নির্দিষ্ট ফাইল সিলেক্ট করে Open বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

কোনো ওয়ার্কবুককে কিভাবে বন্ধ করবে ?

এক্সেল উইডোর টাইটেল বারের Close বাটনে ক্লিক করলে ওয়ার্কবুকটি বন্ধ হবে ।

এক্সেলের বিভিন্ন প্রকার ডেটা টাইপ এবং প্রতেকের উদাহরন দাও

MS Excel-এ বিভিন্ন ধরনের ডেটা টাইপ ব্যাবহৃত হয় তার মধ্যে কতগুলি উল্লেখযোগ্য ডেটা টাইপ হল –

  1. Number : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে সংখ্যা লেখা যায় । যেমন- 122, 123.456 ।

2. Currency : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে কোনো সংখ্যা কে মুদ্রা চিহ্নের সাহায্যে লেখা যায় । যেমন-$12345 ।

3. Date : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে তারিখ লেখা যায় । যেমন – 18-Nov-2019, 18/11/19 ইত্যাদি ।

4. Time : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে সময় লেখা যায় । যেমন- 13:28 , 7: 15 ইত্যাদি ।

5. Percentage : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে % লেখা যায় । যেমন- 56%, 12% ইত্যাদি ।

 6. Fraction : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে ভগ্নাশ লেখা যায় । যেমন- 5.12, 56.89 ইত্যাদি ।

7.  Text : এই ডেটা টাইপের সাহায্যে কোনো শব্দ বা অক্ষর লেখা যায় । যেমন- kolkata, jaiganj, wb57zyz123 ইত্যাদি ।

লেবেল(Label):

MS Excel এর কোনো Worksheet এর সেলে শুধু অক্ষর তথ্য হিসাবে লেখা হলে তাকে লেবেল বলে । এক্ষেত্রে সেলের মধ্যে লেখাগুলি Left Alignment এ থাকবে ।

যেমনঃ Name, City ইত্যাদি ।

ভ্যালু (Value):

MS Excel এর কোনো Worksheet এর সেলে শুধু সংখ্যা তথ্য হিসাবে লেখা হলে তাকে ভ্যালু বলে । যার উপর গানিতিক প্রক্রিয়া সম্পাদন করা যায় ।

যেমনঃ Roll, Salary, Date ইত্যাদি ।

Introduction to Spreadsheet

Introduction to Spreadsheet

error: Content is protected !!